রবিবার, ১৮ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৪৯ অপরাহ্ন

লকডাউন থেকে মুক্ত হলো পুঠিয়ায় ৪১ পরিবার

Avatar
নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার ২৮ এপ্রিল, ২০২০
  • ১১৬ বার পঠিত

রাজশাহীর প্রথম করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ি জেলার পুঠিয়া উপজেলার জিউপাড়া ইউনিয়নে। করোনা রোগী সনাক্তের পর তার বাড়িঘর সহ সংস্পর্শে আসা ৪৩ টি বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে লকডাউন ঘোষণা করেছিলো উপজেলা প্রশাসন। তবে লকডাউনে পড়ার ১৬ দিন অতিবাহিত হওয়ার পর করোনা আক্রান্তের বাড়ি ও তার বোনের বাড়ি বাদে ৪১ টি বাড়িঘর ও প্রতিষ্ঠান অবমুক্ত করা হয়েছে।

সোমবার (২৭ এপ্রিল) বিকেলে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের অবমুক্ত করার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। তারা এখন স্বাভাবিক চলাফেরা করতে পারবেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ওলিউজ্জামান।

উপজেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে, পুঠিয়া উপজেলাধীন ঝলমলিয়া হাট পেরিফেরিভুক্ত অঞ্চল এবং জিউপাড়া বগুড়াপাড়ায় লকডাউনকৃত অঞ্চলের বাড়ি ঘর ও ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানসহ লকডাউনে পড়া ৪৩ টি পরিবারের মধ্যে ৪১ টি বাড়ি ঘর ও প্রতিষ্ঠান অবমুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ওলিউজ্জামান উপস্থিত থেকে এ ঘোষনা দিয়েছেন। তবে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ি ও তার বোনের বাড়ি লকডাউনের আওতায় থাকবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ওলিউজ্জামান জানান, করোনা আক্রান্ত রোগী সনাক্তের পর তাদের লকডাউন করা হয়েছিলো। তাদের অনেকের করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিলো তবে অন্য কারো শরীরে করোনা রোগ সনাক্ত হয়নি। এছাড়াও কারো করোনার লক্ষণও দেখা না দেয়ায় ঘোষণার ১৬ দিন পর তাদের অবমুক্ত করা হয়েছে। এতদিন তাদের মধ্যে অস্বচ্ছল ব্যক্তিদের সরকারী ও ব্যক্তিগত ভাবে খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, এ ঘোষণার পর লকডাউনে থাকা ঝলমলিয়া হাট সীমিত আকারে চালু করা হবে। তবে আক্রান্তের বাড়ি ও তার বোনের বাড়ি পরবর্তি ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত লকডাউনে থাকবে।

সুত্রঃ সোনালী

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, desk@puthianews.com ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন puthianews আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

নিউজ টি শেয়ার করে অন্যদের জানার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এ জাতীয় আরো খবর..