January 21, 2021
রাজশাহীর আরও ৪ জন করোনায় আক্রান্ত

রাজশাহীর আরও ৪ জন করোনায় আক্রান্ত

রাজশাহীতে আরও চার জনের নমুনায় করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। এই নমুনাগুলো ঢাকা পরীক্ষা করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে ঢাকা থেকে রাজশাহীর চারজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কথা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে। এ নিয়ে রাজশাহীতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩ জনে।

রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচলক ডা. গোপেন্দ্র নাথ আচার্য্য বলেন, রাজশাহী থেকে বেশ কিছু নমুনা ঢাকায় পাঠানো হয়েছিল। সেগুলো আজ পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্য রাজশাহীর চারজনের নমুনায় পজেটিভ এসেছে বলে ফোন করে জানানো হয়েছে। বিস্তারিত সিভিল সার্জন জানাতে পারবেন বলে জানান তিনি।

রাজশাহী জেলা প্রশাসক হামিদুল হক জানান, ঢাকায় পাঠানো নমুনা থেকে চারজনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এর মধ্যে রয়েছে মোহনপুরে ২ জন, তানোরে ১ জন ও পবায় ১ জন। পবায় করোনায় আক্রান্ত একজন স্বাস্থ্যকর্মী বলে জানা গেছে।

রাজশাহীতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তরা হলেন মোহনপুর উপজেলার কেশরহাট পৌরসভার তসোপাড়া গ্রামের খয়বর রহমানের ছেলে ফারুক হেসেন (২৮), এই উপজেলার হরিদাগাছি গ্রামের আবুল কালাম আজাদের ছেলে আলামীন (২৫), তানোর উপজেলার বাধাইড় ইউনিয়নের হাপানিয়া দোগাছী গ্রামের জার্জিসের ছেলে নসিব (২০) এবং পবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নার্স মাহমুদা বেগম (৫০)।

আক্রান্তদের মধ্যে মোহনপুরের ফারুক হোসেন ঢাকায় বেসরকারি কোম্পানিতে ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ার পদে কর্মরত ছিলেন। গত ১১ এপ্রিল তিনি বাড়ি ফিরেন। তিনিসহ তার পরিবারের তিন সদস্য অসুস্থ্য রয়েছেন। মোহরপুরের অপরজন আলামীন গাজীপুরে পোষক কারখানায় কর্মরত ছিলেন। তিনিও সম্প্রতি বাড়ি যান।

এদিকে পবায় আক্রন্ত মোছাঃ মাহমুদা বেগম ( ৫০) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নার্স পদে কর্মরত আছেন। তার পরিবারের সদস্য সংখ্যা চারজন। তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কোয়ার্টারে থাকেন। তিনি হেড নার্সের দায়িত্ব পালন করছেন। আর মোহনপুরের নসিব সম্প্রতি ভারত থেকে এসেছে অসুস্থ্য হয়ে পড়েন।

এদিকে, মঙ্গলবার রাজশাহী ল্যাবে একজনের নমুনায় করোনাভাইরাস পাওয়া যায়। করোনায় আক্রান্ত ওই রোগির নাম খায়রুল ইসলাম (৪১)। তার বাড়ি নওগাঁ জেলা সাপাহারে। এ নিয়ে নওগাঁ জেলায় দুইজন করোনা আক্রান্ত রোগি শনাক্ত হলেন।
রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রধান ডা. বুলবুল হাসান জানান, মঙ্গলবার রামেক ল্যাবে ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ৭৫ জনের ফলাফল এসেছে। যার মধ্যে একজনের নমুনায় পজেটিভ আসে। বাকি ১৮টির কোন ফলাফল পাওয়া যায়নি। নমুনার গুনাগুন নষ্ট হওয়ায় এগুলোর ফলাফল পাওয়া যায়নি। এগুলো নমুনা পুনরায় সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হবে। এ দিন এ ল্যাবে আরও ৬৩ নমুনা এসেছে। এর মধ্যে মোহনপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ১৮ জন চিকিৎসকসহ স্বাস্থ্যকর্মীর নমুনা রয়েছে।

ডা. বুলবুল বলেন, আগের দিন সোমবার ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তবে পরীক্ষার পর সাতটি ফলাফল বাতিল করা হয়েছে। এ দিন কারো নমুনা পজেটিভ পাওয়া যায়নি। তবে এ আগের তিন রাজশাহী মোহনপুরের এক বৃদ্ধের নমুনা পজেটিভ পাওয়া যায়।

রাজশাহীতে গত ১২ এপ্রিল প্রথম করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) রোগী শনাক্ত হয়। সর্বশেষ গত ২৬ এপ্রিল একজন আক্রান্ত রোগি শনাক্ত হওয়ার পর তা বেড়ে দাঁড়ায় নয়জনে। আক্রান্তদের মধ্যে পাঁচজন নারী ও চারজন পুরুষ। আক্রান্তদের মধ্যে পুঠিয়া উপজেলায় পাঁচজন, বাগমারায় একজন, মোহনপুর দুইজন ও বাঘা উপজেলায় একজন। এদের মধ্যে রোববার সকালে বাঘার বৃদ্ধ আব্দুস সোবহান মারা যান। আক্রান্ত আটজন নিজ বাড়িতেই আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আক্রান্তদের সাতজনই ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর থেকে এসেছেন।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ দৈনিক সানশাইন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to Top