রবিবার, ১৮ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৪৮ অপরাহ্ন

বর্ষায় কলার নার্সারিতে (Banana Nursery) কৃষকেরা দেখতে পারেন লাভের মুখ

Avatar
পুঠিয়া নিউজ ডেস্কঃ
  • আপডেট টাইম : শনিবার ২০ জুন, ২০২০
  • ২২ বার পঠিত
বর্ষায় কলার নার্সারিতে (Banana Nursery) কৃষকেরা দেখতে পারেন লাভের মুখ

ভারতে কিছুক্ষেত্রে বাণিজ্যিক চাষাবাদ করা হয়, যার মধ্যে কলার নার্সারি (Banana Nursery) অন্যতম৷ এই বাণিজ্যিক চাষে (Profitable Business) প্রচুর লাভের সম্ভাবনা থাকায় অনেকেই এতে আগ্রহ প্রকাশ করেন৷ এতে যেমন ব্যয় কম তেমনই গ্রাম্য পরিবেশে এই কম বিনিয়োগ করেই নার্সারি থেকে প্রচুর পরিমাণ অর্থ উপার্জনের সুযোগ থাকে৷ কমপক্ষে এক থেকে দেড় মাসের মধ্যেই কলার এই নার্সারি থেকে ভালো রোজগার করা যেতে পারে৷

লখনউ, গোরখপুর, কৌশাম্বি এমনই বিভিন্ন স্থানে কলার নার্সারির প্রচুর চাহিদা রয়েছে৷ সুযোগ থাকলে অন্যান্যরাও এটি চেষ্টা করে দেখতে পারেন, তবে তার জন্য কয়েকটি বিষয় একটু জেনে নেওয়া যাক৷ এই কলার নার্সারি (Banana Nursery) তৈরি করতে সময় লাগে কমপক্ষে ২৫-৩০ দিন৷ টিস্যু কালচার পদ্ধতি অনুসরণ করা হয় কলার নার্সারিতে৷ তাই কম সময়েই গাছ বেড়ে ওঠে এবং কৃষক যথাযথ মূল্যও পেয়ে থাকেন৷

বছরের যে কোনও সময়েই এই নার্সারি শুরু করা যেতে পারে৷ তবে মে এবং জুন মাসকে এই নার্সারির জন্য সবথেকে ভাসো সময় বলে মনে করা হয়৷ জুন পর্যন্ত নার্সারি তৈরি হয়ে গেলে জুলাই এবং অগস্টে কলার চারা রোপন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে৷ ফল উৎপাদনে ভারতে কলার স্থান তৃতীয়তে৷ ভারতে মোট ফল উৎপাদনের ৩৩ শতাংশ জুড়ে রয়েছে কলা৷ সারা বছরই পুষ্টিগুণে ভরা এই ফল পাওয়া যায় দেশে৷ পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, উত্তরপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র, অসম, গুজরাত, কর্ণাটক প্রভৃতি রাজ্যগুলিতে কলার প্রচুর উৎপাদন হয়৷ আর এইসব রাজ্যের মধ্যে কলার সবথেকে বেশি ফলন হয় মহারাষ্ট্রে৷

কলার নার্সারির জন্য পলি ব্যাগ অত্যন্ত প্রয়োজনীয়৷ সবথেকে প্রথমে একটি পলি ব্যাগ নিয়ে তাতে মাটি এবং গোবর সার সমান সমান দিয়ে ভর্তি করতে হবে৷ এরপর এতে মাঝে মাঝে জল দিতে হবে পরিমিত পরিমাণে৷ এবং কিছু দিন পরে পরে ব্যাভিস্টিন এবং এনপিকে ১৯ ছড়াতে হবে৷

রায় এক মাসের মধ্যে নার্সারির জন্য জমি প্রস্তুত হয়ে যায়৷ প্রত্যেক রাজ্যে কৃষিশিক্ষা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বা কৃষিবিজ্ঞান কেন্দ্র থেকে এই বিষয়ে বিস্তারিত শিখে নিতে পারেন ইচ্ছুক কৃষকেরা৷

এক বিঘা জমি থেকেই বাণিজ্যিকভাবে কলার নার্সারি শুরু করা যেতে পারে৷ এক বিঘাতে তৈরি হয়ে যাবে প্রায় এক লক্ষ গাছ৷ এই এক লক্ষ গাছের নার্সারির জমিতে ব্যয় হতে পারে প্রায় ৯-১০ লক্ষ টাকা৷ আরও কম টাকাতেও ছোট বা মাঝারি ধরণের নার্সারি করতে পারেন কৃষকেরা৷ খুব কম সময়ের মধ্যে ব্যাপক উপাজ্জন করতে চাইলে বাণিজ্যিকভাবে এই কলার নার্সারি লাভজনক হতে পারে৷

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, desk@puthianews.com ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন puthianews আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

নিউজ টি শেয়ার করে অন্যদের জানার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এ জাতীয় আরো খবর..